Gmail! | Yahoo! | Facbook | Bangla Font
প্রচ্ছদ / আইন-আদালত / আওয়ামী লীগ নেতা হত্যার অভিযোগ : সিআইডির চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল
আওয়ামী লীগ নেতা হত্যার অভিযোগ : সিআইডির চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল

আওয়ামী লীগ নেতা হত্যার অভিযোগ : সিআইডির চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল

আতিকুর রহমান টুটুল,সবুজবাংলা২৪ডটকম (ঝিনাইদহ) : আওয়ামী লীগ নেতা টিএম আজিবর রহমান মোহনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার চুড়ান্ত রিপোর্ট দিয়েছে সিআইডি পুলিশ।গত বছর ১০ মে সকাল ৭টার দিকে আজিবর রহমান মোহন ও তার ভাই মুজিবর রহমান খোকনের সাথে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে সকালে গোলযোগ হয়। এক পর্যায় মুজিবর রহমান খোকন আকস্মিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আজিবর রহমান মোহন তার ভাইকে জালাল ও শাহাজাহানের সহযোগীতায় কোটচাদপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হাসপাতালে যাওয়ার পথে বারোমাসি ব্রীজের নিকট পৌছালে ৭টা ৫৫ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।পিতার মৃত সংবাদ পেয়ে হুয়াওয়ে মোবাইল কোম্পানীর ঝিনাইদহ অফিসে কর্মরত গনিউর রহমান ডলফিন বাড়ীতে এসে আজিবর রহমান মোহন (৪০), শাহাজাহান আলী (৫০), জালাল (৫৫) ও ওয়ায়েছ (৪০) কে আসামী করে মহেশপুর থানায় একটি হত্যার অভিযোগ দায়ের করে।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে মহেশপুর থানায় অপমৃত্য মামলা নম্বর ৩৯৪ তাং ১০-৫-২০১৬ দায়ের হলে মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্নয়ের জন্য লাশ ময়না তদন্তে ঝিনাইদহ মর্গে পাঠানো হয়। লাশের সুরতহাল রিপের্টের পর নমুনা ভিসারা রিপোর্টের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মহাখালী সিআইডি দপ্তরে পাঠানো হয়। অপমৃত্যু মামলার মেডিকেল রিপোট না আসা পর্যন্ত হত্যা মামলা দায়ের বা আসামী আটকের দৃষ্টান্ত না থাকলেও মহেশপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশাফুর রহমান সেখানে উপস্থিত হয়ে বলেন যে, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে আওয়ামী লীগ নেতা আজিবর রহমান মোহনকে আটক করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সে মোতাবেক মহেশপুর থানা পুলিশ আজিবর রহমান মোহনকে আটক করে এবং তাকে দীর্ঘদিন জেল-হাজতে রাখা হয়।

এদিকে মৃত মুজিবর রহমান খোকনের মৃত্যুরহস্য উদ্ঘাটনের জন্য মামলাটি সিআইডির উপর ন্যাস্ত হলে সিআইডি দীর্ঘ তদন্তের পর জানতে পারে মৃত মুজিবর রহমান খোকনের মৃত্যু কারো আঘাতে হয়নি। তিনি একজন হৃদরোগী ছিলেন। মাঝে মাঝে তিনি হার্টের চিকিৎসা নিতেন। পূর্বেও তিনি স্ট্রোক করেছিলেন।এদিকে মেডিকেল রিপোর্টে মুজিবর রহমান খোকনের মৃত্যু ব্রেণস্ট্রোকে হয়েছে মর্মে রিপোর্ট আসলে গত ৯ এপ্রিল ঝিনাইদহ সিআইডি অফিসের উপ-পুলিশ পরিদর্শক মোঃ মাসুদ রানা ঝিনাইদহ আদালতে মামলাটির চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করেন। পূর্ব থেকেই ঐ মামলার ১ নম্বর আসামীসহ ৪জনই জামিনে রয়েছেন।

সবুজবাংলা২৪ডটকম/ ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি/ ২৩ মে ২০১৭ /মঙ্গলবার/ ১৫: ০২

মন্তব্য

Scroll To Top
Copy Protected by Chetans WP-Copyprotect.