Gmail! | Yahoo! | Facbook | Bangla Font
শিরোনাম
প্রচ্ছদ / প্রচ্ছদ / ফ্যাশনে নতুন ধাঁচ নিপল শো
ফ্যাশনে নতুন ধাঁচ নিপল শো

ফ্যাশনে নতুন ধাঁচ নিপল শো

সবুজবাংলা২৪ডটকম (ঢাকা) : ফ্যাশনে নতুন একটি ধাঁচ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আগে যেখানে পোষাকের সাথে নানান ধরনের এবং ডিজাইনের টুপি, অলংকার থাকতো, এখন সেগুলো যেন উঠে গিয়েছে। সেখানে জায়গা করে নিয়েছে সাদা-মাটা নিপল। কে কীভাবে তা দেখাতে পারে, তারই যেন শো এই ফ্যাশন শো-গুলো।

লন্ডন ফ্যাশন সপ্তাহে বারবেরি’র পোষাক পরে হেটেছেন মডেল। তার গায়ে নেই বাড়তি কোনও অলংকার। কিন্তু ফুটে উঠেছে ফিনফিনে কাপড়ের ভেতর দিয়ে আকর্ষণীয় দুটো হেডলাইট।

এই ফ্যাশন শো’তে বিভিন্ন ডিজাইনাররা বিভিন্নভাবে নিপল দেখানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু বারবেরি, আর্ডেম এবং ক্রিস্টোফার কেন ইত্যাদি ফ্যাশন হাউজগুলো এগিয়ে গেছে আরো এক ধাপ। তারা ব্রা ছাড়া নিপল দেখানো কাপড় ডিজাইন করেছে। অনেকেই হয়তো ভাবছেন, এগুলো শুধুমাত্র ফ্যাশন শো’র জন্যই করা। কিন্তু বাস্তবতা হলো, লন্ডন কিংবা প্যারিস ফ্যাশন শো’তে যা দেখানো হয়, তার অনেক কিছুই সমাজে প্রবেশ করে যায়। ফ্যাশন হিসেবে মানুষ পরতে শুরু করে, যেমনটা আমাদের দেশে হিন্দি সিরিয়াল দেখে পোষাক নির্বাচন করে বর্তমান সময়ের মেয়েরা।

এই ফ্যাশন শো’তে মডেলরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পরেছেন সী-থ্রু শিফন ট্যাঙ্ক টপ, যার ভেতর দিয়ে পুরো শরীরটাই দেখা যাচ্ছে। এখন প্রশ্ন উঠেছে, বাজারে তো এগুলো পাওয়া যাবে; সেক্ষেত্রে আপনি কি আপনার ভদ্রতা রক্ষা করে এই পোষাক পরতে পারবেন? এর সমাধানও তারা দিয়েছেন। এই সী-থ্রু কাপড়ের উপর পরে নিন একটি চমৎকার জ্যাকেট। ব্যাস, হয়ে গেল।

তবে নিপল দেখানো নিয়ে বিতর্কও তৈরী হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রাম তাদের নীতিতে বলেছে, নিপল দেখানো ছবি আপলোড করা যাবে না। কিন্তু এর প্রতিবাদ করেছেন স্কাউট উইলিস। তিনি দীর্ঘদিন নিপল দেখানো নিয়ে জনমত তৈরী করে আসছেন। তিনি প্রতিবাদ করে বলেছেন, আমি বলতে চাইছি না যে, সবাইকে বুক খুলে কিংবা ব্রা-ছাড়াই কাপড় পরতে হবে। আমি বলতে চাইছি, মেয়েরা কিভাবে তার শরীরকে প্রদর্শন করবে সেটা নির্বাচন করার অধিকার তার নিজের রয়েছে – এবং সেটা সে নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী করবে। মানুষ তার প্রতি কেমন রিঅ্যাক্ট করবে, কিংবা সমাজ তাকে কীভাবে বিচার করবে- তার উপর ভিত্তি করে নয়।

এবং তিনি ইনস্টাগ্রামের উপর রাগ করে নিচের ছবিটি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন। সেখানে তিনি ক্যাপশন হিসেবে লিখে দেন, “যা ইনস্টাগ্রাম আপনাকে দেখতে দিবে না” (“What @instagram won’t let you see #FreeTheNipple”)।

সঙ্গত কারণেই প্রশ্ন উঠতে পারে, এই যখন পৃথিবীর আরেক প্রান্তের মানুষের ধ্যান ধারণা, সেখানে বাংলাদেশের মানুষ আগামীতে কোনদিকে যাবে?

তথ‌্যসূত্র: দি ডেইলী লাইফ

সবুজবাংলা২৪ডটকম/ ঢাকা / ১২ অক্টোবর ২০১৪ /রবিবার/ ১৯: ৫৮

মন্তব্য

Scroll To Top
Copy Protected by Chetans WP-Copyprotect.